নভেম্বরে প্রথম বৈশ্বিক বৌদ্ধ সম্মেলন আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে ভারত

আগমী নভেম্বরে প্রথম বৈশ্বিক বৌদ্ধ সম্মেলন আয়োজন করার পরিকল্পনা করছে ভারত। গত মঙ্গলবার ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস (আইসিসিআর) বিষয়টি ঘোষণা করেছে। সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ”বৌদ্ধ অধ্যয়ন ও প্রচার” এর জন্য একটি নতুন পুরস্কার প্রদান করবেন বলে জানিয়েছে।

আগমী ১৯-২০ নভেম্বর  বিহারের উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্য নালন্দার ‘নব নালন্দা মহাবিহার’ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

ICCR সভাপতি ডা. বিনয় বলেন, “এটি হবে আইসিসিআর আয়োজিত গ্লোবাল বৌদ্ধ কনফারেন্স প্রথম সংস্করণ। কনফারেন্সেরে প্রতিপাদ্য বিষয় হবে “সাহিত্যে বৌদ্ধধর্ম”।”

Global Buddhist Conference in November

আইসিসিআর জানিয়েছে, সম্মেলনটি পর্যক্রমে ভারতে চারটি আঞ্চলিক যেমন- ধর্মশালা, গ্যাংটক, সারনাথ এবং তেলেঙ্গানায় অনুষ্ঠিত হবে। ভারতের বাইরে- কম্বোডিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া এবং থাইল্যান্ডে আয়োজন করা হবে। সম্মেলনটিকে আঞ্চলিক ফোরাম থেকে বৈশ্বিক সম্মেলনে রূপ দেওয়া হবে।

ডা. বিনয় বলেন, “বৌদ্ধধর্ম ভারতের জন্য একটি অপরিহার্য উপাদান।” “অতএব, বৌদ্ধধর্মের ধারণায় ভারতের প্রাধান্য এবং ভারতের ধারণায় বৌদ্ধধর্মের প্রাধান্যকে একাডেমিক পদ্ধতিতে আন্ডারস্কোর করা হচ্ছে।”

আইসিসিআর, ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে একটি স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা যা সাংস্কৃতিক বিনিময়ের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সাংস্কৃতিক সম্পর্কের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে। আইসিসিআর উৎসব এবং সম্মেলন আয়োজনের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানের সমর্থনের উপর সাংস্কৃতিক কূটনীতি পরিচালনা করে।

ICCR মহাপরিচালক দিনেশ কে. পাঠানি বলেন, “এটি একটি একাডেমিক সম্মেলন, এর প্রধান উদ্দেশ্য হবে, ভারতকে বৌদ্ধধর্মের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত করার। এটির উদ্দেশ্য কেবল পর্যটন আকর্ষণ নয়, বরং এটিকে বৌদ্ধ ক্রিয়াকলাপের কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলা, যেমন একাডেমিক, সাংস্কৃতিক, সেমিনার ইত্যাদি করা।”

Global Buddhist Conference in November

আইসিসিআর আরও ঘোষণা করেছে যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২১ নভেম্বর নয়াদিল্লিতে “বৌদ্ধ অধ্যয়ন ও প্রচার” এর কাজে অবদান রাখার জন্য পুরস্কার প্রদান করবেন। ভারতের বৌদ্ধ ঐতিহ্যকে তুলে ধরার জন্য সরকারের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এই পুরস্কারটি আন্তর্জাতিকভাবে ”বৌদ্ধ অধ্যয়ন ও প্রচারে” বিদেশী পণ্ডিত, ব্যক্তি এবং সংস্থার অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ দেওয়া হচ্ছে। ইতোপূর্বে সংস্কৃত ও ইন্ডোলজি প্রচারের জন্য ভারত একই ধরনের পুরস্কার প্রদান করেছে।

ড. বিনয় বলেন, “এই পুরস্কারে নগদ ২০,০০০ মার্কিন ডলার অর্থ পুরস্কার, একটি ফলক এবং একটি স্বর্ণ-ধাতব পদক থাকবে। যদি একাধিক পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তি থাকে, তবে পরিমাণ সমানভাবে ভাগ করা হবে।”

গ্লোবাল বৌদ্ধ সম্মেলনটি নালন্দা মহাবিহারের ৭০তম পূনঃ প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে সেট করা হয়েছে্। নালন্দা মহাবিহারটি বৌদ্ধ শিক্ষার প্রাচীন আসনকে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য ১৯৫১ সালে ভারতের রাষ্ট্রপতি রাজেন্দ্র প্রসাদের অধীনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

”ভারত এবং বিদেশে অবস্থিত বিভিন্ন বৌদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয় বা প্রতিষ্ঠানের বিশিষ্ট পণ্ডিতরা গ্লোবাল বৌদ্ধ সম্মেলন এ অংশগ্রহণ করবেন। ১৫০ জনের অধিক IBC প্রতিনিধি ছাড়াও অনেক GBC প্রতিনিধি ১৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নিবেন।

আরো পড়ুন>>

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!