১৬ মে’র পর কঠোর লকডাউন

Covid-19 এর কবলে পড়ে পুরো বিশ্ব আজ দিশা হারা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও কলডাউন চলছে করোনার ২য় ঢেউ চলাকালীন সময় থেকে। এর ধারাবাহিকতায় করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী ১৬ মের পর থেকে আরেক এক দফা লকডাউন বাড়াতে চলেছে সরকার। করোনার কারনে হাজার হাজার মানুষ মরলেও এখনও অনেক মানুষ মাস্ক পড়তে অনভ্যস্ত ও অনিহা প্রকাশ করে। শতভাগ মাস্ক পড়া নিশ্চিত করতে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়া হবে বলে দেশের শীর্ষস্থানীয় পত্রিকা গুলোর মাধ্যমে জানা গেছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে করোনার ভারতীয় ধরন পাওয়া গেছে। ঈদের ছুটিতে মানুষ শহর ছেড়ে বিভিন্ন স্থানে পাড়ি জমাচ্ছে ফলে এটি পুরু দেশকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলতে পারে। ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের ভয়াবহতার হাত থেকে বাঁচতে আরো কঠোর সিদ্ধন্ত নেওয়া হচ্ছে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে লকডাউনের সময় বৃদ্ধি বিষয়ে নিশ্চিত করেছে।

Covid-19 সংক্রমণ কমাতে এবং মৃত্যু হারের বৃদ্ধিকে ঠেকাতে সারা দেশকে ৫ এপ্রিল থেকে প্রাথমিক ভাবে ৭দিন লকডাউনের আউতায় আনে সরকার। প্রথম দফা ৭দিন শেষে দুই দিন বিরতি দিয়ে ১৪ এপ্রিল সকাল ৬টা থেকে টানা ৮ দিন আবার লকডাউনের আওতায় চলে যায় পুরো দেশ। গত ২১শে এপ্রিল ৮ দিন শেষ হলেও করোনা পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়ায় সরকার লকডাউনের মেয়াদ ২৮ এপ্রিল পযর্ন্ত বৃ্দ্ধি করে। পরে এটি বৃদ্ধি করে ৫ মে পযর্ন্ত করা হয়। ৩মে মন্ত্রিপরিষদের এক বৈঠকে লকডউনের মেয়াদা বাড়িয়ে আগমী ১৬ মে পযর্ন্ত করা হয়েছিল।
আজকে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের ঘোষণার মাধ্যমে লকডাউন আরেক দফা বাড়িয়ে পুলিশকে বিচারিক ক্ষমতা দিবে বলে জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!