ওবোন ফিরেছে আমেরিকায়: জাপানি বৌদ্ধ উৎসব

ওবোন ফিরেছে আমেরিকায়: জাপানি বৌদ্ধ উৎসবঃ আমেরিকান বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহি উৎসব ওবোন পালন করেছে সান্তা মারিয়ার স্থানীয় বৌদ্ধরা।  COVID-19 মহামারীজনিত কারণে গত দুই বছর এই অনুষ্ঠানটি বন্ধ ছিল।  মহামারি কেটেযাওয়ার পর এটিই প্রথম ওবোন উৎসব। লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে প্রায় ২৪০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে একটি ছোট শহর সান্তা মারিয়াতে গুয়াডালুপ বৌদ্ধ চার্চের সদস্যদের আয়োজনে বার্ষিক এই ওবোন উৎসব পালন করা হয়।

যথাযথ ঐতিহ্য অনুসরণ করে, ওবোন উৎসবটি গত জুলাই মাসের শেষ রবিবার ভেটেরান্স মেমোরিয়াল কালচারাল সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

ওবোন ফিরেছে আমেরিকায়: জাপানি বৌদ্ধ উৎসব

ওবোন অনুষ্ঠানে প্রতিবারের মতো ড্রামিং, নৃত্য, মার্শাল আর্ট এবং স্থানীয় বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের বৃহত্তর জাপানি-আমেরিকান ঐতিহ্যের আঁকা কারুশিল্পের প্রদর্শনী ছিল দেখার মতো। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর থেকে ৭৫ বছর ধরে জাপানি আমেরিকানদের বন্দী করার স্মৃতিচারণ হিসেবে স্থানীয়ভাবে এই ওবোন উৎসবটি উদযাপন করা হচ্ছে।

গত দুই বছর COVID-19 মহামারীর সর্বশেষ ঢেউ চলা পর্যন্ত সতর্কতা অবলম্বন করার কারনে ওবোন অনুষ্ঠিত হতে পারেনি।

গুয়াডালুপে বৌদ্ধ চার্চের ওবোন কমিটির চেয়ার এস্টার ট্রেজো বলেছেন, “আমরা আগে কখনও এটি করিনি। আমরা উত্সবটিকে একটু ছোট করার চেষ্টা করেছি কিন্তু আমরা শেষ পর্যন্ত ছোট রাখতে পারিনি।”

ওবোন ফিরেছে আমেরিকায়: জাপানি বৌদ্ধ উৎসব

কাছের অক্সনার্ড বৌদ্ধ মন্দিরের টোজেন ডাইকো এবং সান লুইস ওবিস্পো বৌদ্ধ মন্দিরের ইচি মি ডাইকোর পরিবেশনায় জাপানি ঐতিহ্যের “টাইকো ড্রামিং” বেশ সাড়া ফেলেছে স্থানীয় এলাকা জুড়ে।

ট্রেজো উল্লেখ করেন, “আমাদের প্রতিবেশি মন্দিরগুলি সত্যিই বেরিয়ে এসেছে এবং আমাদের সমর্থন করেছে,”

অনুষ্ঠান চলাকালে স্থানীয় এবং প্রতিবেশী সম্প্রদায়ের লোকেরা তাদের নিজস্ব অঙ্কন ও চিত্র শিল্প দিয়ে গ্যালারি ভর্তি করেছিল। মার্শাল আর্ট প্রদর্শনীতে সান্তা মারিয়ার রাইজিং সান মার্শাল আর্ট এবং নিপোমোর সেন্ট্রাল কোস্ট কেনপো কারাতে অন্তর্ভুক্ত ছিল। তেরিয়াকি চিকেন ডিনার সহ বিভিন্ন রেসিপির খাবার দেখা গেছে এবারের ওবোন উৎসবে। দর্শনার্থীদের কারুশিল্প ক্রয়ের প্রতি বেশি ঝোঁক দেখা গেছে। আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে একটি নিলাম এবং লটারি অনুষ্ঠান ও হয়েছিল উৎসবকে কেন্দ্র করে।

ওবোন উৎসব কি

ওবোন হল গোস্ট ফেস্টিভ্যালের জাপানি নাম, পুরো পূর্ব এশিয়া জুড়ে পালন করা একটি বৌদ্ধ ছুটির দিন। এটি ঐতিহ্যগতভাবে সপ্তম চন্দ্র মাসের পূর্ণিমায় অনুষ্ঠিত হয়, যদিও বৈশ্বিক কারণে স্থানীয় উদযাপনের সময় ভিন্ন হতে পারে। জাপানি বৌদ্ধরা সাধারণত দিনটি তিন ধরে উদযাপন করে।

ওবোনের উৎপত্তি মূলত চীনে। এটি পঞ্চম বা ষষ্ঠ শতাব্দীতে সর্বপ্রথম চীনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। চীনে ওবোন উৎসবকে ইউলানপেন উৎসব বলা হয়। জাপানে এটি ৫০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে পালিত হয়ে আসছে। বর্তমানে ওবোন উৎসবটি সারা দেশে ব্যাপক হয়ে উঠেছে। এদিন জাপানিরা পূর্বপুরুষদের সমাধি পরিদর্শন করে এবং আত্মীয়দের খোঁজ খবর নিতে বেড়াতে যায়।

ওবোন ফিরেছে আমেরিকায়: জাপানি বৌদ্ধ উৎসব

১৯ শতকে জাপানিদের হাত ধরে ওবোন উৎসবটি প্রথম আমেরিকা ক্যালিফোর্নিয়ায় এসেছিল।

ট্রেজো বলেন, “দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পরে জাপানিরা ফিরে আসার পর থেকে উৎসবটি এখানে অবিচ্ছিন্নভাবে উদযাপন করা হয়েছে এমনকি যুদ্ধের সময় এটি পালনে কোন বিরতি ছিল না।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!