ভুটানে এক সাথে ১৪২ জন নারী ভিক্ষুণী ধর্মে দীক্ষিত

ভুটানে এক সাথে ১৪২ জন নারী ভিক্ষুণী ধর্মে দীক্ষিত হয়েছেন। বৌদ্ধধর্মে সংঘ প্রতিষ্ঠার পর নারীদের ধর্ম চর্চায় সমান সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় গত ২১ জুন, ২০২২ এই পূণ্যময় কাজটি সম্পন্ন করেন ভুটানের নারীরা।

এই উদ্দেশ্যে ভুটানের শহর পারোতে একটি উপাসম্পাদা অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে। নব দীক্ষিত ভিক্ষুণীদের অধিকাংশই ভুটানি হলেও, হিমালয় অঞ্চলের অন্যান্য বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের অনেকেই অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন।

অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করা একটি ঘোষণায়, ভুটানের কেন্দ্রীয় ভিক্ষু সংস্থা ঝুং ড্রাটশাং এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে-

”আজ, ২১ শে জুন, ২০২২-এ, ৪র্থ চন্দ্র মাসের ২৩ তম দিনের সাথে মিল রেখে, ভুটানের রামথাংখ্যা, পারোতে, খেনপো ভুটান নান ফাউন্ডেশনের ঘোষণা অনুযায়ী মহামহিম দ্য জে প্রায় ১৪৪ জন সন্ন্যাসীনীকে গেলংমা শপথ প্রদান করছেন। ব্রত গ্রহণকারী ভিক্ষুণীরা শুধু ভুটান নয়, প্রতিবেশী দেশ থেকেও এসেছেন। আজ সূর্যকে ঘিরে রংধনুর মতো শুভ লক্ষণ দেখা যেতে পারে।”

ভুটানের রাণী মহিমতি গ্যালিয়াম শেরিং ইয়াংডোয়েন ওয়াংচুক এবং রাজপরিবারের সদস্য সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ যেমন, দোরজি লোপেন, সোগ-কি লোপেন এবং লেতশোগ লোপেন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ভুটানে ভিক্ষুণীদের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা

ভুটানে সর্বক্ষেত্রে পরিবর্তনের অন্যতম প্রধান এজেন্ট হল নারী সমন্বয় আন্দোলন। এই আন্দোলনকে সরাসারি সমর্থন দেন ভুটানের মহামহিম রাণী মা আশি শেরিং ইয়াংডোয়েন ওয়াংচুক। রাণীর পৃষ্ঠপোষকতায় ভুটানে পরিচালিত হয় ভুটান নানস ফাউন্ডেশন এর কার্যক্রম। ভুটান নানস ফাউন্ডেশন ভুটানে বৌদ্ধ ভিক্ষুণীদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার উন্নতি করতে এবং মৌলিক ও উচ্চ শিক্ষায় তাদের অ্যাক্সেস বাড়ানোর জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বৌদ্ধ কর্মী এবং ভুটান নানস ফাউন্ডেশন এর নির্বাহী পরিচালক ডঃ তাশি জাংমো ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত করেন ”ভুটান নান ফাউন্ডেশন”। এর প্রধান লক্ষ্য হল ভুটানি নারীদের ক্ষমতায়ন ও শিক্ষিত করে তাদের জীবনযাত্রার অবস্থা এবং গ্রামীণ অর্থনৈতিক জীবনীশক্তি উন্নত করা। অধিকন্তু, রাজ্যের সমৃদ্ধ বৌদ্ধ সংস্কৃতি সংরক্ষণে সহায়তা করা। দ্রুত উন্নয়নের লক্ষ্যে ফাউন্ডেশনটি প্রায় বিশ্বের ২৮টি বৌদ্ধ নারী ভিক্ষুণী সংঘের সাথে সরাসরি কাজ করে, ফাউন্ডশনের পক্ষ থেকে সম্প্রদায়ের নেতা এবং শিক্ষক হতে ভিক্ষুণীদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দেয়।

ভুটানের প্রায় ৭,৭০,০০০ জনসংখ্যার প্রায় ৭৫% বৌদ্ধ। অবশিষ্ট ২৫ শতাংশের অধিকাংশ, প্রধানত নেপালী বংশোদ্ভূত লোটশাম্পা জাতিগোষ্ঠীর। তারা হিন্দু ধর্ম পালন করে। ভুটানের বেশিরভাগ বৌদ্ধরা বজ্রযান বৌদ্ধ ধর্মের নাইংমা স্কুলগুলো অনুসরণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!